সীমের বায়োমেট্রিক রিঃরেজিস্ট্রেশন

ফেব্রুয়ারী ২০১৬ - জুন ২০১৬
বাংলাদেশ সরকারের নির্দেশে দ্বিতীয়বারের মত মোবাইল অপারেটর কোম্পানীগুলো তাদের প্রায় ১৩ কোটি সীম রিঃরেজিস্ট্রেশনের কার্যক্রম শুরু করে। তবে এতে ফিঙ্গারপ্রিন্ট (বায়োমেট্রিক) নেয়ার বিষয়টি নিয়ে সাধারণ মানুষ ব্যপক প্রতিক্রিয়া প্রদর্শন করে। উন্নত বিশ্বের কোথাও এধরনের বায়োমেট্রিক ডাটা মোবাইল অপারেটরদের কাছে দেয়ার নজীর নাই বলে জানা গিয়েছে। বায়োমেট্রিক ডাটার ভুল ব্যবহারের আশংকায় জনগন ফেসবুকে এর বিরুদ্ধে ব্যপক প্রতিবাদ অব্যহত রাখে। এর ভেতরে বিশ্বের কয়েকটি দেশের বায়োমেট্রিক ডাটা লিক হওয়া পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকে নিয়ে যায়। এছাড়াও বারবার সীম রিঃরেজিস্ট্রেশনের ঝামেলায় অনেকে বিরক্ত হয়েছেন। প্রথমবার এপ্রিল মাসে বায়োমেট্রিক রেজিস্ট্রেশনের শেষ তারিখ ঘোষণা করা হলেও পরবর্তীতে তা মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়। এবং জুনের এক তারিখ থেকে রেজিস্ট্রেশন না করা সীমগুলো অচল করে দেয়ার নির্দেশনা প্রদান করে বিটিআরসি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত প্রায় দুই কোটি সীম পুনঃরেজিঃ হয়নি যেগুলো প্রথমে আউটগোয়িং বন্ধ এবং পরবর্তীতে পুরো সীম অচল করে দেয়া হয়েছে। জনমনে এতে ব্যপক ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

Related Blogs

Thoughts